পাবনা

পাবনায় যৌন হয়রানির অভিযোগে চিকিৎসক ও ক্লিনিক মালিক কারাগারে

  সবুজ আলো ডেস্ক ৭ জুলাই ২০২৪ , ১০:৫৪:২৫

নিউমেডিপ্যাথ ডায়াগনস্টিক সেন্টার

পাবনায় নারী রোগীকে চিকিৎসার সময় যৌন হয়রানির অভিযোগে আটক নিউ মেডিপ্যাথ ডায়াগনস্টিক সেন্টারের চিকিৎসক ও মালিকের জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

রোববার (৭ জুলাই) দুপুরে পাবনার চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক কামাল হোসেন তাদের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সংশ্লিষ্ট আদালতের সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা (জিআরও) জুলফিকার হায়দার।

অভিযুক্তরা হলেন- নিউ মেডিপ্যাথ ডায়াগনস্টিক সেন্টারের মালিক জীবন আলী ও চিকিৎসক ডা. সোভন কুমার সরকার।

আদালতের জিআরও জুলফিকার হায়দার বলেন, ‘দুপুরে চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করা হয়েছিল। এসময় তাঁদের জামিন আবেদন করা হলে আদালত তা নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠান।’

এর আগে শনিবার বিকেলে পাবনা সদর থানার পাশে অবস্থিত নিউ মেডিপ্যাথ ডায়াগনস্টিক সেন্টার থেকে তাঁদের আটক করে পাবনা সদর থানা পুলিশ।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, শনিবার দুপুরে ওই নারী তার স্বামীর সঙ্গে নিউ মেডিপ্যাথ ডায়াগনস্টিক সেন্টারে আল্ট্রাসনোগ্রাম করার জন্য যান। ওই নারীকে নির্ধারিত কক্ষে নিয়ে নারী সহকারীকে দিয়ে আল্ট্রাসনোগ্রামের জন্য প্রস্তুত করা হয়।

অভিযোগে বলা হয়, এসময় কৌশলে ওই নারী সহকারীকে বাহিরে পাঠিয়ে রোগীর যৌনাঙ্গে হাত দিয়ে যৌন উত্তেজনামুলক কথাবার্তা বলেন চিকিৎসক সোভন। সঙ্গে সঙ্গে রোগী বাহিরে এসে বিষয়টি তাঁর স্বামীকে জানালে, সেখানে উত্তেজনাকর পরিস্থিতি তৈরি হয়। এসময় রোগী ও তাঁর স্বামীকে বিষয়টি নিয়ে আর বাড়াবাড়ি না করার জন্য হুমকি ধামকি দেওয়া হয়। পরে ভুক্তভোগীরা থানা পুলিশের আশ্রয় নেন।

এবিষয়ে পাবনা সদর থানার ওসি (তদন্ত) শহীদুল ইসলাম জানান, অভিযোগের ভিত্তিতে তাঁদের আটক করা হয়েছিল। পরে তাদের বিরুদ্ধে আইনি প্রক্রিয়া শেষে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।